আমাদের টিমে স্বাগতম

বাংলা ভাষায় অনলাইনে দেশ বিদেশের যেকোন প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে অত্যন্ত কম স্পিডের ইন্টারনেট স্পীতের মাধ্যমে অনলাইনে সরাসরি ফ্রিল্যান্সিং কোর্স এবং কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং এর উপর প্রশিক্ষণ দিচ্ছে তথ্য প্রযুক্তিভিত্তিক সংগঠন ইনফোনেট। দেশের সর্বপ্রথম এবং সর্ববৃহৎ এই প্রতিষ্ঠানটি অত্যন্ত স্বল্পমুল্যে প্রতিবছর শত শত শিক্ষার্থীদের দক্ষ এবং পেশাদারী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কর্মক্ষম করে তুলছে।

বর্তমানে তথ্যপ্রযুক্তিতে বাংলাদেশ অভুতপূর্ব উন্নতি অর্জন করেছে, পাশাপাশি দেশের তরুণ সমাজ ফ্রিল্যান্সিং এ অবদান রেখে চলছে এবং দেশ অর্জন করছে বৈদাশিক মুদ্রা। কিন্তু দু:খের বিষয় হলো আমাদের ১৬ কোটি লোক থাকা সত্ত্বেও আমরা এ খাতে আশানুরূপ সফলতা পায়নি, তাছাড়া শিক্ষিত বেকারদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং একটি সম্ভাবনাময় পেশা। কিন্তু কিছু অসাধু লোক এটির অপব্যবহার করে তরুণদের অন্ধকারের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। যার ফলে তরুণরা একপর্যায়ে হতাশা অনুভব করে, তাছাড়া দেশের অনেক জেলায় সত্যিকার ফ্রিল্যান্সিং সর্ম্পকে ধারণা নেই। তাই আমরা কয়েকজন পেশাদার ফ্রিল্যান্সারগণ মিলে দেশের প্রতিটি জেলার শিক্ষিত তরুণদের অনলাইনে ফ্রিল্যান্সিং এ শীর্ষ চাহিদা সম্পন্ন কোর্সগুলো+ফ্রিল্যান্সিং বিনামুল্যে করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি, ইংরেজীতে দক্ষ যেকেউ ইন্টারনেট সংযুক্ত পিসি থাকলে ঘরে বসে দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে কোর্স করার সুযোগ পাবে। দেশের অপার সম্ভাবনাময় পেশা ফ্রিল্যান্সিংকে তরূণদের মাঝে সহজেই ছড়িয়ে দিতে এই উদ্যোগ। এখানে পেশাদার ফ্রিল্যান্সার কর্তৃক অনলাইনে সরাসরি ট্রেনিং এর পাশাপাশি লেকচারশীট এবং প্রতিটি সপ্তাহ শেষে পরীক্ষা ও এবং কোর্স শেষে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। এখানে ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়ার্ডপ্রেস, এসইও, ইমেইল মার্কেটিং এবং আর্টিকেল রাইটিং এর উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। এছাড়া শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন ই-বুক ও পেনড্রাইভের মাধ্যমে কিংবা ওয়েবসাইট থেকে উক্ত প্রতিষ্ঠান থেকে ফ্রি ভিডিও টিউটোরিয়াল প্রদান করা হয়। এখানে কোর্স করার পর মেধাবী শিক্ষার্থীরা চাইলে এই সংগঠনে কাজ করার সুযোগ পাবেন। প্রতিটি ব্যাচে শুধুমাত্র ১০০ জন অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন, ক্লাস হবে সপ্তাহে ৩ দিন, ১ থেকে ১:৩০ ঘন্টা। মোট ৪৫ দিনের কোর্স। ডে শিফ্ট এবং মর্নিং শিফ্ট থাকায়, চাকরীজীবিরাও কোর্সে অংশ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। অনলাইনে টিমভিউয়ার সফ্টওয়্যারের মাধ্যমে সরাসরি স্ক্রিন শেয়ার করে শেখানো হবে। এতে ওয়েবক্যাম থাকার প্রয়োজন নেই। ইতোমধ্যে দুটি ব্যাচের ক্লাস চলছে, এবং তৃতীয় ব্যাচ ৫০ জনের উপর রেজিস্ট্রেশন করেছেন। কোর্সে অংশ নিতে যোগ দিন: https://www.facebook.com/groups/infonetbd/ ) তে

আমাদের উদ্দেশ্য

অন্যান্য প্রতিষ্ঠান থেকে আমরা কেন ভিন্ন এবং আমাদের সাভির্সের মান কতটুকু ভালো তা জানুন এখান থেকে তথ্য-প্রযুক্তির যুগে যখন সারাবিশ্ব প্রযুক্তির ব্যবহার তথা যোগাযোগ ব্যবস্থার মাধ্যমে খুব দ্রুত তাল মিলিয়ে এগিয়ে চলছে, তখন আমার দেশের ৫ কোটি শিক্ষিত তরুণ টিভির সামনে বসে তা দেখছেন আর প্রশংসা করছেন। কিন্তু একবারও ভাবেন না, ঔই জায়গায় আজ আমিও থাকতে পারতাম বা পারি। কিংবা যখন ভারতের বেকার শিক্ষিত তরুণগণ ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আজ ভাগ্য পরিবর্তন করে নতুন নতুন সাফল্য নিয়ে আসছেন তখনও আমাদের বেকার-শিক্ষিত তরুণগণ ১৫,০০০/২০,০০০ টাকার চাকরীর জন্য মাসের পর মাস বিভিন্ন অফিসে সিভি নিয়ে দোড়াচ্ছেন। চাকরী নামক সোনার হরিণটি ধরার জন্য। গতানুগতিক মুখস্থ শিক্ষা-ব্যবস্থা আমাদের সময়ের সাথে যায় না। তাই আমরা বর্তমান বিশ্ব থেকে অনেক পিছিয়ে আছি। আবার কিছু তরুণ এস.এস.সি কিংবা এইচএসসি পড়েও আজ ঔই সকল বড় ডিগ্রিধারী কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারদের তাদের অফিসে চাকরী দিচ্ছেন। কারণ তারাই দুদর্শিতার প্রমাণ দিয়ে ভবিষ্যতের পরিবর্তন এবং কোন প্রযুক্তিটি বেশী প্রভাব ফেলবে তা চিন্তা করে এগিয়ে যাচ্ছে। অনেকে এটা জেনেও সঠিক জ্ঞান এবং প্রতিষ্ঠানের অভাবে এগিয়ে যেতে পারছেন না, আপনাকে তুলতেই তথা দেশের তরুণদের প্রযুক্তিতে এগিয়ে নিতেই আমরা দাড়িয়েছি আপনার পাশে। আমরা উদ্যোগ নিয়েছি, বাংলাদেশের প্রতিটি ইউনিয়ন পর্যায়ে ফ্রিল্যান্সিংকে তথা কম্পিউটার কোর্সগুলো ছড়িয়ে দিয়ে আপনাকে বর্তমান প্রযুক্তির সাথে আপডেট রাখতে। আর এতে আপনি ঘরে বসেই ঢাকা থেকে আমাদের প্রফেশনাল এবং অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলীদের লেকচারে অংশ নিতে পারবেন। এজন্য দরকার হবে শুধুমাত্র একটি ইন্টারনেট সংযুক্ত পিসি। ওয়েবক্যাম বা অন্য কিছুর প্রয়োজন নেই। আমাদের দিনে এবং রাতে ক্লাস অনুষ্ঠিত হয় এবং এটার কোন বয়সসীমা নেই। তাই একজন ছাত্র থেকে শুরু করে চাকরীজীবি যেকেউ যেকোন সময় কোর্স করতে পারবেন। কেউ ফ্রিল্যান্সিং করতে আগ্রহী না থাকলেও দেশীয় কাজ কিংবা নিজের ওয়েবসাইট তৈরীর জন্য অথবা কোন সফ্টওয়্যার বা ডিজাইন ফার্মে কাজ করতে আমাদের কোর্সে অংশ নিতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিং এ কাজ করতে হলে অবশ্যই আপনাকে যেকোন কোর্স খুব ভালোভাবে জানতে হবে, কারণ এখানে আপনি কাজ পেতে প্রতিযোগীতা করতে হবে পুরো দুনিয়ার বড় বড় সব ডিজাইনারদের সাথে সুতরাং আমরা আপনাকে সেইভাবেই প্রস্তুত করবো। আর আমাদের ক্লাস সেই ধরণ এবং পরিকল্পনা অনুযায়ী হচ্ছে যাতে খুব স্বল্পসময়ে আপনি একজন প্রাকটিক্যাল ডিজাইনার হয়ে উঠতে পারেন। ১৫,০০০/২০,০০০ টাকায় ভর্তি হয়ে ড্রিমওয়েবার কিংবা থার্ড-পার্টি সফ্টওয়্যার দিয়ে টেনে টেনে কয়েকটা ডিজাইন নয়। আমরা সরাসরি কোডিং করেই শেখাচ্ছি। এছাড়াও আমাদের নিজস্ব লেকচারশীট, ভিডিও টিউটোরিয়াল, আজীবন সহায়তা, প্রবলেম সলুশন, এসাইনমেন্ট, প্রাকটিজ ফাইলসহ রয়েছে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা যেটা আপনি সাধারণ প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে পাচ্ছেন না। আর তাই এই কয়েকদিনেই আমাদের শিক্ষার্থী সংখ্যা ৫০+ হয়ে গেছে। তাই যারা আগেও কোর্স করেছেন কিন্তু সফল হতে পারছেন না, আমার অনুরোধ আমাদের এখানে আরেকবার করে দেখুন, পার্থক্য আপনিই বুঝবেন এবং সফল হবেন- ইনশাল্লাহ।

আমাদের দক্ষতা

ইনফোনেট সুনামের সাথে প্রতিবছর শত শত শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছেন, ইনফোনেট শিক্ষার্থীদের অনুরোধেই ইনফোনেট কোর্স সমুহকে টিউটোরিয়াল ডিভিডি আকারে বাজারে ছাড়ে, বর্তমানে ইনফোনেট এর মেম্বার সংখ্যা ৩৩,০০০+

  • 100%
    ওয়েব ডিজাইন
  • 100%
    রেসপন্সিভ পিএসডি টু এইচটিএমএল
  • 100%
    পিএসডি টু ওয়ার্ডপ্রেস
  • 90%
    পিএসডি টু ওয়ার্ডপ্রেস
  • 80%
    পিএইচপি
  • 76%
    ইকমার্স সাইট ডেভেলপমেন্ট
  • 65%
    ইমেইল মার্কেটিং এন্ড এসইও
  • 85%
    গ্রাফিক্স ডিজাইন

টিম মেম্বার

দেশজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে ইনফোনেট এর শত শত শিক্ষার্থী এবং শুভাকাঙ্খি, এছাড়া রয়েছে অনেক স্বেচ্ছাসেবক, তবে যারা ইনফোনেট এর সাথে অঙ্গাআঙ্গিভাবে জড়িত নিচে তাদের কয়েকজনের নাম এবং পদবী উল্লেখ করা হলো

Shorifull

Web Designer & Wordpress

about designer

Lorem Ipsum is simply dummy text of the printing and typesetting industry. Lorem Ipsum has been the industry's standard dummy text ever since the 1500s, when an unknown printer took a galley of type and scrambled it to make a type specimen book. It has survived not only five centuries, but also the leap into electronic typesetting, remaining essentially unchanged. It was popularised in the 1960s with the release of Letraset sheets containing Lorem Ipsum passages, and more recently with desktop publishing software like Aldus PageMaker including versions of Lorem Ipsum.